ইফতারে ভুলেও তিনটি খাবার খাবেন না

ইফতারে ভুলেও তিনটি খাবার খাবেন না।

যা আল্লাহর নবী কখনোই পছন্দ করতেন না। এতদিন তো রোজা রেখে আসছেন, আমরাও রোজা রাখতেছি। তো সারাদিন উপবাস থেকে আমরা যখন ইফতার করি। যে এতদিন ইফতারি করে আসছি, যে খাবারগুলো আল্লাহর নবী কখনোই পছন্দ করতেন না। আমরা যদি এই খাবারগুলো খায়, তাহলে আমাদের রোজা অবশ্যই প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যাবে। এজন্য ভুলেও এই তিনটি খাবার খাবেন না। আপনার আইডিয়া ক্লিয়ার করার জন্য, আমরা যদি খাবারের নাম গুলো বলি আপনি বলবেন, এই খাবার এতদিন তো আমরা অনেকেই খেয়ে আসছি। এজন্য সাবধান ভুলে এই তিনটি খাবার ইফতারে খাবেন না।

আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু সাল্লাম যে খাবার গুলো পছন্দ করতেন, আমরা ওই খাবারগুলো ইফতারিতে রাখতে পারি। আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু সাল্লাম সবচেয়ে বেশি পছন্দ করতেন মধু, আল্লাহতালা যখন মদকে হারাম করে দিলেন, আল্লাহতালা তখন মধুকে হালাল করে দিছেন। আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু সাল্লাম কখনোই কাঁচা পেঁয়াজ পছন্দ করতেন না। কারণ কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়ার পর আপনি দেখবেন মুখ থেকে এত পরিমান দুর্গন্ধ বের হয়। যেটা সাধারণ কোনো মানুষই পছন্দ করতে পারবে না।

কাচা পেঁয়াজ খাওয়া আমাদের জন্য হারাম নয় কিন্তু আল্লাহ রাসুল সাল্লালাহ সালাম কাঁচা পেঁয়াজ কে অপছন্দ করতেন। কারণ কাঁচা পেঁয়াজ খেলে মুখ থেকে দুর্গন্ধ বের হতো তা ফেরেশতারা সহ্য করতে পারত না। কিন্তু তিনি বলেছেন আমরা চাইলে কাঁচা পিয়াজ খাইতে পারবো কিন্তু রান্না করা পেঁয়াজ আমরা অবশ্যই খাইতে পারবো। যদি আমরা দুর্গন্ধ থেকে বাঁচতে চাই তাহলে অবশ্যই আমরা কাঁচা পেঁয়াজ থেকে বিরত থাকব। সারাদিন যেহেতু আমরা রোজা রাখি, আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু সাল্লাম যে, ধরনের খাবার পছন্দ করতেন আমরা সেই ধরনের হালাল খাবার খাব।

আল্লাহ রাসুল সাল্লালাহ সালাম মধু খেতে পছন্দ করতেন, খেজুর খেতে পছন্দ করতেন, খেজুর খেতে পারেন। আপনি যদি আপনার নিজের শক্তিকে কন্ট্রোল করতে চান। তাহলে অবশ্যই খেজুর খাবেন। কারণ আল্লাহ রাসুল সাল্লালাহ সালাম খেজুর খেতে খুব পছন্দ করতেন।

তারপরও রয়েছে ইফতারিতে কখনো গরম খাবার খাবেন না। গরম খাবার খেলে, আমাদের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা অনেক কমে যায়।

ইফতারে ভুলেও তিনটি

Leave a comment